আজ ১১ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

সাতক্ষীরায় সাধারণ মানুষকে নির্যাতন, ভূমি দখল ও মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর অভিযোগ

মাসুদ আলী, সাতক্ষীরা: সাতক্ষীরায় সাধারণ মানুষকে নির্যাতন, ভূমি দখল ও মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছে গ্রামবাসী। মঙ্গলবার দুপুরে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়নের পাথরঘাটা গ্রামবাসী সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের মাধ্যমে এ লিখিত অভিযোগ করেন। লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ঝাউডাঙ্গা ইউনিয়নের পাথরঘাটা গ্রামের মৃত রওশন আলীর পুত্র আসাদুল ইসলাম (আসাদ), তৌহিদুল ইসলাম, আজহারুল ইসলাম খোকন, রবিউল ইসলাম রবির বিরুদ্ধে মাদক ব্যবসা, নিরীহ মানুষের জমি দখল, চাঁদাবাজী ও বিভিন্ন অসামাজিক কার্যকলাপে সম্পৃক্ত থাকার অভিযোগ রয়েছে। এছাড়া একই গ্রামের জামায়াত নেতা কামরুজ্জামান হাসানের পুত্র মুনাওয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজী ও পরসম্পদ দখলের অভিযোগ করা হয়েছে। মুনাওয়ার হোসেন অত্র এলাকার আরশাদ আলীর পুত্র হচেন আলীর কাছ থেকে জমির প্রলোভন দেখিয়ে ১ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ করেছে এবং গ্রামের অসহায় ও গরীব লোকদের কাছ থেকে বিভিন্ন কাজের প্রলোভন দেখিয়ে টাকা আত্মসাৎ করছে। মাদক ব্যবসায়ী আসাদুল ইসলাম আসাদের বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা জজকোর্টে ৪টি মামলা চলমান রয়েছে। তারপরেও সে বহাল তবিয়তে রমরমা মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। ফলে গ্রামের যুব সমাজ মারাত্বকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। তৌহিদুল ইসলাম একই গ্রামের মৃত ফজর আলীর পুত্র আব্দুর রউফের নিকট থেকে ৫০ হাজার টাকা, মৃত শাহাজান আলীর কন্যা রত্মা খাতুনের কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা, মৃত রতিকান্তি ঘোষের পুত্র সহাদেব কুমার ঘোষের কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকা আত্মসাৎ করেছে। আজহারুল ইসলাম খোকন গ্রামের বিভিন্ন নিরীহ মানুষের জমি দখল ও মহিলাদের উপর মারধর ও অত্যাচার করে আসছে। আসাদ, তৌহিদুল, খোকন ও মুনাওয়ার ২০২০ সালের ২১ মার্চ গ্রামের মৃত আফিল উদ্দিনের পুত্র গোলাম ওয়াদুদের ঘরসহ ৬ শতক জমি জোরপূর্বক দখল করে সেখানে রমরমা মাদক ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এব্যাপারে থানায় অভিযোগ করার স্বত্বেও কোন কার্যকর ব্যবস্থা হয়নি। স্থানীয় বাসিন্দা ওয়াজেদ আলী মসজিদের জন্য ৬টি বড় মেহগণি গাছ দান করলেও সেগুলোও তারা ভয়ভীতি দেখিয়ে দখল করে কেটে নিয়েছে। সম্প্রতি গ্রামবাসীরা ভূমি জরিপ করার জন্য ১ জন আমিন নিয়ে আসলেও উক্ত ভূমি দখলকারী ও মাদক ব্যবসায়ীরা আমিনকে ভয়ভীতি দেখিয়ে তাড়িয়ে দেয়। এরপর পুনরায় গ্রামবাসীরা একত্রিত হয়ে ২০২০ সালের ৯ ডিসেম্বর আমিন এনে ভূমি জরিপের কাজ চলাকালীন সময়ে বিভিন্ন অস্ত্রসস্ত্র নিয়ে অভিযুক্তরা আক্রমণ করে। যা মোবাইলে ভিডিও ধারণ করা রয়েছে। বিষয়টি আমরা তাৎক্ষণিক প্রশাসনকে অবহিত করলে সদর থানার ওসি এসে তাদের কাছ থেকে এসব অস্ত্র উদ্ধার করে নিয়ে যায়। এঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা না নিয়ে গ্রামবাসীর নামে মামলা করা হয়েছে। অভিযুক্ত আসাদ, তৌহিদুল, খোকন ও মুনাওয়ার প্রমুখের অসৎ কর্মকান্ডের মদদদাতা রবিউল ইসলাম রবি বর্তমানে ঢাকার সোনারগাঁও হোটেলে কর্মরত থেকে স্থানীয় প্রশাসনকে হাত করে অপকর্ম ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে বলে অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে। বর্তমানে গ্রামবাসী তাদের অত্যাচারে জিম্মি হয়ে পড়েছে। এমনকি তাদের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলতেও সাহস পায় না। এজন্য তাদের বিরুদ্ধে দ্রুত আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবী জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছে গ্রামবাসী।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর

মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা