আজ ৫ই মাঘ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে জানুয়ারি, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ইউপি নির্বাচনে সাতক্ষীরা মিঠাবাড়ী মেম্বার পদপ্রার্থীদের লড়াই হবে দ্বিমুখী

মোঃ সাইদুজ্জামান শুভ : আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সাতক্ষীরা জেলার তালা উপজেলার ০২ নং নগরঘাটা ইউনিয়নের চার নং ওয়ার্ডের মিঠাবাড়ী গ্রামে মেম্বার পদপ্রার্থীদের সংখ্যা মোট ০৪ জন তবে ভোটের লড়াই টা এবার সহজ সমীকরণে পৌঁছে গেছে। তথ্য মতে এ ওয়ার্ডে মোট ভোটারের সংখ্যা ১২০০ জন  যার মধ্যে পুরুষ ৫৭০ জন এবং  মহিলা ৬৩০ জন ভোটার।

 মিঠাবাড়ী চার নং ওয়ার্ড থেকে এবার মেম্বার পদপ্রার্থী হিসাবে তালা উপজেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সদস্য, নগরঘাটা ইউনিয়ন সেচ্ছাসেবক লীগ এর বর্তমান  সাধারণ সম্পাদক, ও যুব স্বপ্নের বাংলাদেশ সংগঠনের সহ সম্পাদক শেখ সরোয়ার নির্বাচনে লড়াই করবেন। ইতিমধ্যে তিনি বর্তমান সরকারের সহযোগী সংগঠন সেচ্ছাসেবক লীগ এর দলীয় পদে আছেন। এছাড়া মিঠাবাড়ী এলাকায় তিনি একজন সমাজ সেবক হিসাবে নিজেকে মেলে ধরতে সক্ষম হয়েছেন সম্প্রতি করোনা পরিস্থিতিতে ছিলেন অসহায় মানুষের পাশে। মিঠাবাড়ী জনপ্রিয় শেখ পাড়া তিনি এবার প্রার্থী। একটি পাড়ার মধ্যে থেকে একক প্রার্থী হওয়ার ভোটের লড়াইয়ে তিনি ভোটারদের কাছে থেকে বেশি ভোট পাবেন বলে ইতিমধ্যে আলোচনা শুরু হয়েছে। 

মেম্বার পদপ্রার্থী হিসাবে  মোঃ সিরাজুল ইসলাম এর নাম উঠে এসেছে। এলাকায় তিনি বি এন পি কর্মী হিসেবে সবার কাছে পরিচিত। আবারও তিনি মেম্বার পদপ্রার্থী হিসাবে ঘোষণা দিয়েছেন এবং এলাকায় তার পোস্টার দিয়েছেন। 

মেম্বার পদপ্রার্থী হিসাবে রাসেল গোলদারের নাম শোনা যাচ্ছে তিনি বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকারের দলীয় সংগঠন এর কোন পদে নেই। তবে তিনি আওয়ামীলীগ এর বিভিন্ন অনুষ্ঠানে তাকে দেখা যায়। তবে তার কাছ থেকে জানা গেছে তিনি নগরঘাটা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ যে কমিটি রয়েছে তিনি সেখানে সদস্য আছেন। কিন্তু নগরঘাটা ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ এর সভাপতি মোঃ আক্তারুল ইসলাম  জানান, রাসেল গোলদার আওয়ামী লীগ এর কোন সদস্য পদে নেই।  ইতিমধ্যে প্রচারণা শুরু করেছেন তিনি।

মেম্বার পদপ্রার্থী হিসাবে বর্তমান মেম্বার আব্দুস ছামাদ নির্বাচনে লড়াই করবেন। তবে ইতিমধ্যে তিনি একজন বির্তকিত মেম্বার হিসাবে পরিচিত লাভ করছে। মিঠাবাড়ী নূর ইসলাম নূরুি কে মেরে তিনি ভাইরাল হয়েছিলেন। ভাতার কার্ড নিজের স্ত্রী নামে করেছিলেন। বিভিন্ন লোকের কাছে থেকে নিয়েছেন কার্ড বাবদ টাকা। মেম্বার থাকাকালীন সময়ে তিনি একই বাড়ি দিয়েছেন একের অধিক কার্ড। তিনি মেম্বর থাকাকালীন সময়ে গরীব মানুষের জীবনযাত্রার উপর কোন পরিবর্তন আসে নি। এবার বর্তমান বির্তকিত সামাদ মেম্বার কে ছকের বাইরে রেখেছেন ভোটাররা। 

তবে এবার নির্বাচনে বেশ জোরালো দ্বিমুখী  লড়াই হবে বলে আশা করছে এলাকা বাসী। 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর

মহান বিজয় দিবসের শুভেচ্ছা