আজ ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

‘করোনার অজুহাতে মাঝপথে ভোট বন্ধ হলে মানবো না’, হুঙ্কার মমতার

দেশজুড়ে দৈনিক সংক্রমণের রেকর্ড। রবিবার আক্রান্তের সংখ্যা এক লক্ষ ছাড়িয়েছে। ভারতে আছড়ে পড়েছে করোনার দ্বিতীয় ঢেউ। বাংলাতেও জাপট দেখাচ্ছে কোভিড। উদ্বেগের মাঝেই ভোটের বাংলায় প্রচারের রমরমা। সব রাজনৈতিক দলের প্রচারেই ভিড় নজরকাড়া। শিকেয় স্বাস্থ্যবিধি। এই পরিস্থিতিতে আট দফা ভোটের জন্য কমিশন ও কেন্দ্রের বিরুদ্ধে সুর চড়ালেন তৃণমূল নেত্রী। করোনা পরিস্থিতি দেখিয়ে ভোট বন্ধ করার চেষ্টা কহলে তা মানা হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী।

বাংলায় এবার আট দফায় ভোট হচ্ছে। আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির কথা বিবেচনা করেই এই পদক্ষেপ কমিশনের। প্রথম থেকেই কমিশনের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে মুখর হয়েছে তৃণমূল। আর এবার করোনা রেকর্ডহারে বৃদ্ধির অজুহাত দেখিয়ে মাঝপথেই ভোট বন্ধ করে দেওয়া হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার চুঁচুড়ায় প্রচারে গিয়ে তৃণমূল নেত্রী বলেছেন, ‘করোনা বাড়ছে। এই অবস্থায় কি ভোটটা ৩, ৪ দফায় করে নেওয়া উচিত ছিল না? ৮ দফায় ভোট ঘোষণা করার পর এখন যদি করোনা পরিস্থিতি দেখিয়ে এখন ভোট বন্ধ করার চেষ্টা করা হয়, তাহলে কিন্তু চলবে না। খেলা যখন শুরু হয়েছে তখন শেষ করতে হবে।’

নির্বাচন যখন হচ্ছে, তখন তা নির্ধারিত সূচি মেনেই শেষ করতে হবে বলে কার্যত হুঁশিয়ারি দিলেন তিনি। পাশাপাশি রাজ্যে বিনামূল্যে টিকাকরণের জন্য কেন্দ্রের কাছে আবেদন করেও সুরাহা মেলেনি বলে ফের তোপ দাগেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁর কথায়, ‘ তোমরা চাও, মানুষ মারা যাক। আমারই তো রাজ্যের সবাইকে বিনামূল্যে টিকা দেব বলে বার বার চিঠি দিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারকে জানিয়েছিলাম। তার জন্য যত টাকা লাগে, তা দিয়ে কেন্দ্রের থেকে কিনে নেব। কিন্তু তোমরা তো দিচ্ছই না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর