আজ ৩১শে বৈশাখ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ১৪ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

উন্নয়নে নয়, জোয়ারের পানিতে ভাসছে আশাশুনি সদর

বি এম আলাউদ্দীন আশাশুনি প্রতিনিধি:

 উন্নয়ন নয়, জোয়ারের পানিতে ভাসছে আশাশুনি সদর। আশাশুনি মরিচ্চাপ নদীর প্রবল জোয়ারের পানি উপচে পড়ে প্রবেশ করে উপজেলা সদরের প্রধান সড়ক। এতে করে উপজেলার আশাশুনি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়, থানা জামে মসজিদ, আশাশুনি থানা চত্বর ও আশাশুনি সদর বাজার জোয়ারের পানিতে টইটুম্বুর হয়ে থাকতে দেখা গেছে। এ যেন উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে আশাশুনি উপজেলা সদর। আশাশুনি সদরের পার্শ্ববর্তী মরিচ্চাপ নদীর জোয়ারের পানি বৃদ্ধি হওয়ায় কয়েকটি পয়েন্ট দিয়ে প্রবল বেগে পানি বাজারের ভিতরে ঢুকতে থাকে।

এতে করে আশাশুনির বাজারের সকল শ্রেণীর ব্যবসায়ীরা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এছাড়া আশাশুনি থানার সরকারি পুকুরটি নদীর লবণাক্ত পানিতে তলিয়ে যায়। ফলে একদিকে মিষ্টি পানির মাছ গুলো মরে যাবে অন্যদিকে মসজিদের মুসল্লিসহ থানা পুলিশ পানি ব্যবহার থেকে বঞ্চিত হবে। এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ নাজমুল হুসেইণন খাঁন বলেন, আমি পানি উন্নয়ন বোর্ডকে এক্ষুনি অবহিত করছি দ্রুত আশাশুনি বাজার রক্ষা ভেড়িবাঁধ নির্মাণের জন্য। এ ব্যাপারে আশাশুনির সদর বাজারের একাধিক দোকানী বলেন আমদের এ ভোগান্তির যেন শেষ নেই। উপজেলা সদরে প্রশাসনের সামনেই প্রতিনিয়ত এধরনের প্লাবিত ঘটনা ঘটলেও বিষয়টি আমলে নিয়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করেন না কেউই। এছাড়া আশাশুনি থানা পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা দুঃখ প্রকাশ করে বলেন সারারাত ডিউটি শেষে সকালে গোসল করার মত আর কোন উপায় থাকল না আমাদের। জোয়ারের পানি বাজারে প্রবেশ পড়াকালীন কিছুু সময়ের জন্য যেন এ স্থগিত হয়ে যায় আশাশুনি সদর বাজার এর সকল কার্যক্রম। নদীর জোয়ার শেষে পানি নেমে গেলেও বাজারের মধ্যে জোয়ারের পানিতে নাকানিচু খেতে হয় সাধারণ পথচারীদের। আশাশুনি উপজেলা সদর ও বাজারের ভোগান্তির হাত থেকে রক্ষা পেতে অতি দ্রুত একটি বাজার রক্ষা বাঁধ দিতে পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন বাজার এর সকল ব্যবসায়ী ও স্থানীয় সচেতন মহল।

নামায ও ইফতারের সময়সূচীঃ

সেহরির শেষ সময় - ভোর ৩:৫৭ পূর্বাহ্ণ
ইফতার শুরু - সন্ধ্যা ৬:৩৯ অপরাহ্ণ
  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:০২ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:০২ অপরাহ্ণ
  • ৪:৩৬ অপরাহ্ণ
  • ৬:৩৯ অপরাহ্ণ
  • ৮:০১ অপরাহ্ণ
  • ৫:২২ পূর্বাহ্ণ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর