আজ ১৪ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৯শে জুলাই, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

ব্রহ্মরাজপুর ৪০ বছরের পৈত্রিক সম্পত্তি দখলের জের- আদালতে মামলা ভূমি দশ্যুরা উপায় না পেয়ে আবারো মিথ্যা মামলায় ফাঁসানোর চেষ্টা

শাহিন আলম, সদর: সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়নে দামারপোতায় ৪০ বছরের পৈত্রিক সম্পত্তি জবর দখলের চেষ্টা জেরে আদালতে মামলার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ বিষয়ে দামারপোতা গ্রামের মৃত আপ্তাব বিশ^াস এর পুত্র সিরাজ উদ্দীন বিশ^াস বাদী হয়ে সাতক্ষীরা বিজ্ঞ আমলী আদালতে গত ২ মে ২০২১ তারিখে মুনজিতপুর গ্রামের মৃত আঃ মাজেদ সরদারের পুত্র চিহ্নিত ভূমি দশ্যু ও মামলাবাজ রাউফুজ্জামান (লাদেন) ও রাশেদুজ্জামান, মাছখোলা গ্রামের মৃত আঃ সাত্তারে পুত্র আঃ সবুর, তাহেদুরের পুত্র আবু তাহের, মাছখোলা গ্রামের আঃ সবুরের পুত্র রাজু আহম্মেদ, মৃত সাত্তারের পুত্র লিটন ও সালাম, মৃত হাতেম এজারার পুত্র লুৎফর রহমান, ছুরাত আলীর পুত্র আল-মামুন, বড়দাল গ্রামের শওকত আলীর পুত্র বাবলুর রহমান (বাবু), আলফাজের পুত্র পিন্টু মল্লিক, রেজাউল গাইনের পুত্র হাফিজুর রহমান এদের নামে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলা নং- সি.আর ৩৬৪/২১। বিজ্ঞ আদালতের বিচারক মামলাটি পর্যবেক্ষণ করে সাতক্ষীরা সদর থানার অফির্চার ইনচার্জকে মামলাটি এফআইআর হিসাবে রজু করার নির্দেশ দেন। অফিসার ইনচার্জ মোঃ দেলোয়ার হুসেন আদালতের আদেশ অনুযায়ী মামলার কাগজ পত্রাদী দেখে যে, বে-আইনী জনতাবদ্ধে বাদীর তফসীল বর্ণিত সম্পত্তিতে অনধিকার ভাবে প্রবেশ পূর্বক হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিট করিয়া সাধারণ ও গরুত্বর জখম, চুরি, ক্ষতি সাধন, ভয়ভীতি প্রদান সহ হুকুম দানের অপরাধ আইনে ৬ মে ২০২১ তারিখে মামলাটি রিকার্ড করেন। মামলা নং- ১৪/২১সাঃ। মামলার বিবরণে জানা যায়, সদর উপজেলার ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়নের দামারপোতা সুইচ গেটের পাশের্^ ব্রহ্মরাজপুর মৌজার জে,এল নং- ১০৩, এস,এ- ৩১৪ খতিয়ানে সাবেক ১৯৬২ দাগের ৪০ শতক জমি জমা নিয়ে জমির মালিক দাপারপোতা গ্রামের মৃত ছদন আলী বিশ^াসের পুত্র আনছার আলী বিশ^াস, মৃত আপ্তাব উদ্দীনের পুত্র সিরাজ উদ্দীন বিশ^াস গংদের সাথে সাতক্ষীরা মুনজিতপুর এলাকার মৃত কাদের সরদারে পুত্র আঃ মাজেদ সরদারের সাথে দীর্ঘ দিন ধরে বিরোধ চলছিল। তথ্য অনুসন্ধানে জানা যায়, ২০১১ সালে আনসার আলী বিশ^াসের পৌত্রিক সম্পত্তি জোরপূর্বক ভাবে আঃ মাজেদ সরদারের পুত্র ভূমি দশ্যু রাউফুজ্জামান (লাদেন) ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী বাহিনী নিয়ে নালিশি সম্পত্তি দখল করিতে আসিলে আনসার আলী বাদী হয়ে বিবাদী আঃ মাজেদ সরদারের বিরুদ্ধে সাতক্ষীরা সহকারী জর্জ আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। যার মামলা নং- ২৪৪/১১, তাং- ২৭/১০/২০১১ খ্রি.। বিজ্ঞ আদালতের বিচারক বাদীর পক্ষে রায় ঘোষনা করে। উক্ত রায়ের বিরুদ্ধে বিবাদী আঃ মাজেদ সরদার গত ইং ২০ নভেম্বর ২০১১ তারিখে সাতক্ষীরা যুগ্ন জেলা জর্জ আদালতে মামলার বিরুদ্ধে আপিল করে। বিজ্ঞ আদালতের বিচারক মোঃ ফারুক ইকবাল গত ইং ৭ জুলাই ২০১৯ তারিখে আবারো মূল মালিক আনছার আলী গংদের পক্ষে রায় ঘোষনা করেন। রায় অনুযায়ী নালিশী সম্পত্তির মালিক মৃত আনছার বিশ^াস গংরা ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়নের দহাকুলা গ্রামের সোবহান আলীর পুত্র আব্দুস সেলিম, তাজেল সরদারের পুত্র মাসুদ রানা, চেলারডাঙ্গা গ্রামের আরশাদ আলীর পুত্র ইশার আলী ও ওমরাপাড়া গ্রামের ইব্রাহিম মোড়েলর পুত্র রিপন মোড়ল গংদের নামে ইং ০১/০১/২০২১ হইতে ৩১/১২/২০২৩ তারিখ পর্যন্ত ৩ বছর মেয়াদে লীজ চুক্তিপত্র করেন। লীজ গ্রহীতা গংরা ইং ১৭/০৪/২০২১ তারিখে অনুঃ বেলা ১২.০০ ঘটিকার সময় মৎস ঘেরে কর্মরত অবস্থায় থাকলে বিবাদী পক্ষগণ আদালতের নির্দেশ অমান্য করে বেআইনী ভাবে জনতায় দলবদ্ধ ভাবে অনধিকার প্রবেশ করিয়া মারাত্মক অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হইয়া ১০/১২ জন সন্ত্রাসীরা হাতে ধারালো দা, লোহার রড, লোহার হাতুড়ী ইত্যাদি দিয়ে মারপিট করিয়া রক্তাক্ত কাটা ফোলা জখম করে। উক্ত ঘটনার বিষয়ে মামলার বাদীর কাছে জানতে চাইলে তিনি এ প্রতিদেবকে জানান গত ১৭ এপ্রিল ২০২১ তারিখে উক্ত ঘটনা নিয়ে আমরা সদর থানায় একটি এজাহার দায়ের করি। বিবাদী পক্ষগণও ১৫ জনের নাম উল্লেখ করে একটি মিথ্যা কাল্পনিক বিষয় সাজিয়ে থানায় এজাহার দেয়। ঐ সময় সদর থানার ভারপ্রপাপ্ত অফিসার ইনচার্জ বুরহান উদ্দীন আমাদের মামলাটি থানায় না নিয়ে বিবাদী ভূমি দশ্যু লাদেনের দেওয়া এজাহারটি রেকার্ড করেন। যার মামলা নং- ৩৩, তারিখ- ১৯/০৪/২০২১। মামলার পর থেকে আমাদের বিভিন্ন সময় পুলিশ দিয়ে হয়রানি করে। আমাদের ৪০ বছরের পৈত্রিক সম্পতি রক্ষার্থে কোন উপায় না পেয়ে আমার সাতঃ বিজ্ঞ আদালতে মামলা করি। এখন শুনছি না কি গত ১৫ জুন ঐ ভূমি দশ্যু রাউফুজ্জামানকে ব্রহ্মরাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের পাশে কে বা কারা তাহাকে গণ ধুলাই দিয়েছে। আমি সহ আমার কোন ভাই ব্রাদার আত্নীয় স্বজন ঐ বিষয়ে কিছুই জানি না। কিন্তু ভূমি দশ্যু আমাদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা করছে। এমতাবস্তায় ভুক্তভূগীরা ন্যায় বিচারের আশায় প্রসাশনের উদ্ধতন কর্মকর্তার আশু হস্থক্ষেপ কামনা করেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর