আজ ৮ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ, ২৪শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ

পাটকেলঘাটার বড়কাশিপুর গ্রামের বেল্লাল হোসেন বিলু বেপরোয়া

নিজস্ব প্রতিনিধি: পাটকেলঘাটার বড়কাশিপুর গ্রামের বেল্লাল হোসেন বিলু বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। ব্যাংক এবং ব্যাবসায়ী দের টাকা আত্মসাত করায় ৪ টি মামলা হয়েছে রয়েছে তার নামে। ঘটনার বিবরনে জানা যায় পাটকেলঘাটা থানার খলিশখালী দাখিল মাদ্রাসার শিক্ষক সাতক্ষীরা জেলার পাটকেলঘাটা থানার বড়কাশিপুর গ্রামের মৃতঃ আব্দুর রহিম শেখের ছেলে বেল্লাল হোসেন বিলু। দীর্ঘ দিন এলাকার সহজ সরল মানুষ এবং ব্যাবসায়ীদের বলে যে তিনি একজন ব্যাবসায়ী । তার প্রতিষ্ঠানের নাম বলে মেসার্স রহমান ফার্ম । তিনি মাদ্রাসা শিক্ষক একজন ধার্মিক লোক বলে মানুষের বিশ্বাস অর্জন করেন। এই ভাবে সরল মনা ব্যাবসায়ী দের নিকট থেকে বিভিন্ন সময় মোটা অংকের বিভিন্ন মালামাল নিয়ে পরে টাকা দেবেন বলে পাওনাদারদের চেক দেন। কিন্তু চেক নিয়ে দেখা গেছে তার ব্যাংক একাউন্টে টাকা নাই। তিনি ইসলামি ব্যাংক সাতক্ষীরা সদর শাখা থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা নিয়ে পরিশোধ করেন নাই৷। ইসলামি ব্যাংক কতৃপক্ষ কে বেল্লাল হোসেন বিলু ৩ টি চেক দিয়েছে। উক্ত চেকে টাকা না পাওয়ায় ইসলামি ব্যাংকের পক্ষে ইমদাদুল হক বাদী হয়ে কোর্টে মামলা করেছেন। যার নং সি, আর, ৭৫১/১৯ ( সাত) সি, আর, ৭৬৫/ ১৯ ( সাত) সহ আরো একটি মামলা। ধারা এন, আই, এ্যাক্ট ১৩৮ ধারা। সাতক্ষীরা পৌরসভার কাটিয়া সরকার পাড়ার বিশিষ্ট ব্যাবসায়ী আব্দুস সালামের পুত্র মোঃ মাসুদের নিকট থেকে মৎস্য ঘেরের ও পুকুরের মাছের খাদ্য কিনে সোনালী ব্যাংক খলিশখালী শাখা সাতক্ষীরা একলক্ষ তেষট্টি হাজার টাকার চেক দেয় বেল্লাল হোসেন বিলু কিন্তু ব্যাংকে টাকা না থাকায় চেক ডিজঅনার হয়। তিনি নিরুপায় হয়ে লিগ্যাল নোটিশ পাঠিয়ে দেন কিন্ত টাকা পাননি। মোঃ মাসুদ বাদী হয়ে শিক্ষক বেল্লাল হোসেন বিলু কে আসামী করে কোর্টে মামলা করেছে। মামলাটিতে সমন হয়েছে । এলাকাবাসীর নিকট থেকে জানা যায়, বেল্লাল হোসেন বিলু একটি ইসলামী সংগঠনের সক্রিয় সদস্য । তার নামে নাশকতার মামলা আছে। পাটকেলঘাটা থানা সূত্র জানা যায়, পুলিশের সরকারী কাজে বাঁধা দিয়েছিল এবং পুলিশ কে আহত করার কারনে ও রাষ্ট্রবিরোধী কাজ করায় বেল্লাল হোসেন বিলুর নামে পাটকেলঘাটা থানা মামলা হয় যার নং ১৩ সহ একাধিক মামলা আছে। মামলার বাদী মোঃ মাসুদের নিকট থেকে জানা যায় , তিনি মামলা করার আগে এই প্রতারকের গ্রামের বাড়ীতে ১০ বার গিয়েছে । পাটকেলঘাটা বাজার সমিতির কাছে ঘটনা বলেছে। খলিশখালী দাখিল মাদ্রাসার সুপারকে ঘটনা বলেছে কিন্ত এই প্রতারক বেল্লাল হোসেন বিলুর বিরুদ্ধে কেহ মুখ খুলতে সাহস পায় না। মাদ্রাসার শিক্ষক হয়ে ব্যাবসায়ীদের সাথে প্রতারনা , ব্যাংকের সাথে প্রতারনা,সরকারি কাজে বাঁধাদান করে, রাষ্ট্রবিরোধী কাজ করে ৬ টি মামলার আসামী হয়ে কিভাবে ছাত্রদের মাঝে শিক্ষার আলো দিবে প্রতারক বেল্লাল হোসেন বিলু। এলাকাবাসী ও ব্যাবসায়ীরা এই প্রতারকের বিচারের দাবী করেছে ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর